অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ? কিভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হয়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ?

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি: আপনার ইচ্ছা হয় যদি আপনি ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করবেন । অথবা আপনি যদি একজন চাকুরীজীবি হয় আপনি চাচ্ছেন কিছু আউটসোর্সিং থেকে আয় করতে । তাহলে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে মোটামুটি পরিমানে আয় করতে পারবেন ।

আপনি যদি খুবই এক্সপার্ট হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি ভাল ইনকাম করতে পারবেন এফিলিয়েট মার্কেটিং করে । তো প্রথমে আমাদের জানতে হবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে করে এবং এটা কি ?

তো আপনাকে একটা উদাহরন দিয়ে বুঝাই। তোমারে কারণ আপনাদের একটি দোকান রয়েছে তো এখন আপনি অন্য একজনকে বললেন আপনি যদি আমার এই প্রোডাক্টটা কে বিক্রি করে দিতে পারেন কাস্টমারদের কাছে তাহলে আমি এই প্রোডাক্ট থেকে যে টাকা আর্ন করব তার থেকে আপনাকে 5 পার্সেন্ট অথবা 10 পার্সেন্ট আপনাকে দিয়ে দিব । তাহলে এখানে সহজেই আমরা বুঝতে পারি যে আপনার প্রোডাক্ট অন্য একজন সেল করে দিলে তাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার বলা যায়।

কিভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হয়

Easyly বুঝতে গেলে অন্য একজনের প্রোডাক্ট আপনি বিক্রি করে দেবেন তার বিনিময় আপনি ওই প্রোডাক্ট এর মালিকের থেকে কিছু পরিমাণ কমিশন নিয়ে থাকবেন।

তো এখন আমরা জানব অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আমরা কিভাবে করব । এফিলিয়েট মার্কেটিং আপনি যদি ইন্টার্নেশনাল করতে চান তাহলে অ্যামাজন আলীএক্সপ্রেস ইত্যাদি নামকরা ওয়েব সাইট থেকে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন । অথবা আপনি যদি বাংলাদেশের লোকাল ই কমার্স ওয়েবসাইট থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন । যেমন দারাজ বিডি শপ ছাড়া আরও অনেকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একসেপ্ট করে এমন ওয়েবসাইট রয়েছে।

Affiliate মার্কেটিং এর জন্য মোটামুটি স্কিল দরকার হবে তবেই আপনি বিভিন্ন ভাবে গুগল থেকে রিসার্চ করে জেনে নিতে পারেন। এছাড়াও ইউটিউবে অনেক ভিডিও পাবেন এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে। সেখান থেকে আপনি বিস্তারিত জেনে আপনি যদি পারফেট মনে করেন আপনার জন্য তাহলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে প্রচুর ধৈর্যের প্রয়োজন হবে এবং একটু সময় লাগবে আপনি যদি প্রতিদিন 4 ঘণ্টা করে সময় দিতে পারেন তাহলে আপনি আরো দুই-তিন মাসের মধ্যে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শিখে ফেলতে পারেন ।এ ছাড়া এটা ডিপেন্ড করে আপনার কাজের উপর অথবা আপনি কত তাড়াতাড়ি শিখতে পারেন.

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ওয়েবসাইট

Affiliate মার্কেটিং সম্পর্কে আপনার ধারণা আসার পরে এবং আপনি যখন মনে করবেন আমি আফিলিয়েট মারকেটিং শিখে গেছি, এবং করতে পারব, তাহলে এখন আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের জন্য একটি আফিলিয়েট ওয়েবসাইটস ক্রিয়েট করতে। পারেন এতে করে আপনি যদি অ্যামাজনের আপনার আফিলিয়েট ওয়েবসাইটস অ্যাপ্রুভ করাতে পারেন ।তাহলে অ্যামাজন এর প্রোডাক্ট গুলো আপনার ওয়েবসাইটে আপলোড করে এবং আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনার মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনার অ্যাফিলিয়েট ওয়েবসাইটে যত বেশি ভিজিটর আনতে পারবেন ততো আপনি ইনকাম করতে পারবেন। তবে এই ভিজিটর আনতে হলে আপনাকে ওয়েবসাইট টা কে সুন্দরভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও করতে হবে । তাহলে আপনি অর্গানিক ভাবে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর পাবেন । এবং অ্যাফিলিয়েট প্রোডাক্টগুলো সেল হতে থাকবে যার ফলে আপনি অ্যামাজন অথবা অন্যান্য যে আফিলিয়েট প্রোগ্রাম আছে সেখান থেকে ভালো পরিমাণ আর্নিং করতে পারবেন ।

এছাড়া আরো অনেক ডিজিটাল প্রোডাক্ট রয়েছে সেগুলো ইন্টার্নেশনাল কাস্টমাররা কিনে থাকে সেগুলোতে আপনি বেশি পরিমাণ ইনকাম করতে পারেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে

1 Comments

Previous Post Next Post