কম্পিউটার গেম সামাজিক যোগাযোগের সাইটের আসক্তি থেকে মুক্তির উপায়

কম্পিউটার গেম সামাজিক যোগাযোগের সাইটের আসক্তি থেকে মুক্তির উপায়

কম্পিউটার গেম সামাজিক যোগাযোগের সাইটের আসক্তি থেকে মুক্তির উপায় 

মাদকের নেয় কম্পিউটার গেম বা সামাজিক যোগাযোগ সাইটের আসক্তি হতে পারে তাই । মাদকে আসক্তির জন্য যা যা সত্যি কম্পিউটার গেম সামাজিক যোগাযোগের সাইট আসক্তির জন্য সেগুলো সত্যি । তাই আমরা বলতে পারি একবার আসক্ত হয়ে যাওয়ার পর সেখান থেকে মুক্ত হওয়ার চেষ্টা করা থেকে কখনো আসক্ত না হওয়া অনেক বেশি বুদ্ধিমানের কাজ । যারাই আসক্তি ব্যাপারটা জানে না তাদের পক্ষে আসক্ত হয়ে যাবার একটা আশঙ্কা থাকে । 

কিন্তু তোমরা যারা লেখাগুলো পড়ছো 

তারা নিশ্চয় সতর্ক থাকবে যেন সহজে আসক্ত না হয়ে যাও । কম্পিউটার গেম এক ধরনের বিনোদন কাজেই যারা কম্পিউটার গেম খেলবে তাদেরকে জানতে হবে , অন্য যেকোনো বিনোদনের জন্য যেটা সত্যি কম্পিউটার গেম খেলার বেলাতেও সেটা সত্যি । কম্পিউটার এক ধরনের প্রযুক্তি । কম্পিউটার ব্যবহার করে করা যে কোন কাজকে প্রযুক্তির এক ধরনের ব্যবহার বলে মনে করে সেটা মোটেই সত্যি না । 

কম্পিউটার গেম খেললে 

কম্পিউটারে প্রযুক্তি সম্পর্কে ভালো জ্ঞান হয় না । খেলার আনন্দটা হয় । যেন  কম্পিউটার গেম খেলার কারণে নিজের দৈনন্দিন অন্যান্য কাজে ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে নিশ্চিত হতে হবে । আশা করা যাচ্ছে তোমরা কখনো কম্পিউটার গেমের তো হবেনা ।  ঠিক সেরকম তোমাদের পাশে যারা আছে তাদেরকে কম্পিউটার হতে দেবে না ।যারা কম্পিউটারে গেম খেলে তাদের কিছু সুনির্দিষ্ট বিষয় লক্ষ্য থাকে যেমন তাদের মাথায় শুধু সেই গেমটি থাকে ।

তাদের দৈনন্দিন কাজকর্মে ব্যাঘাত ঘটে । 

লেখাপড়ায় অমনোযোগী হয় । জোর করে তাদেরকে খেলা থেকে বিরত রাখা হলে তাদের শারীরিক অসস্থি থাকে । সবচেয়ে ভয়ংকর কথাটা অনেক কষ্ট করে এই আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়া গেল হঠাৎ করে কোন একটা কারণে আবার শক্তি ফিরে আসতে পারে । তারা কোনো কারণে আসক্ত হয়ে যায় । তারা যদি এই আসক্তি থেকে মুক্তি হতে চায় তাহলে এসব থেকে ধুরে থেকে অন্য কাজে মন দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে ।

তারপর তাকে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ 

বিষয় কি কি তার একটা তালিকা তৈরী করতে হবে । সেই তালিকা কম্পিউটার গেমের জায়গাটুকু কোথায় সেটা নিজেকে বোঝাতে হবে । তার জীবনের সমস্যাগুলো একটি তালিকা করতে হবে সে তালিকা সমস্যাগুলো কোনো কোনোটি কম্পিউটার গেমের কারণ হয়েছে সেটা নিজেকে বোঝাতে হবে । তারপর জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কাজ লেখাপড়া খেলাধুলা এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাক্টিভিটিস পরিবারের সাথে সময় কাটানো সেবামূলক কাজের জন্য ভাগ করে নিতে হবে । সবকিছু করার পর যদি কোন সময় পাওয়া যায় শুধু তাহলে কম্পিউটার গেম খেলবে বলে ঠিক করে নিতে হবে । ধীরে ধীরে কম্পিউটার গেমের সময় কমিয়ে নিজেকে অন্যান্য সৃজনশীল কাজে ব্যস্ত রাখতে হবে ।

তেমনি সামাজিক যোগাযোগ সাইট 

থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য অগ্রসর হতে হবে । প্রথমে নিজেকে বোঝাতে হবে এ ধরনের সাইটে অতিরিক্ত সময় দেওয়া যাবে না । প্রত্যেকবার যখন সামাজিক যোগাযোগ সাইটে কিছু একটা দেখতে ইচ্ছে করবে তখন নিজেকে জিজ্ঞেস করতে হবে সত্যি কি তার প্রয়োজন আছে । যদি প্রয়োজন না থাকে তাহলে নিজেকে নিবৃত করতে হবে । প্রত্যেকবার যোগাযোগ সাইটে ঢুকলে সেখানে কতটুকু সময় দেওয়া আছে কোথায় লিখে রাখতে হবে । দিনে কত ঘন্টা ঘুম সময় দেওয়া হয় কতদিন মাসে কত ঘন্টা সেটা সেভ করে রাখতে হবে ।  সেই সময়টাতে সত্তিকারের কোন কাজ করে কতটুকু কাজ করা যেত নিজেকে বোঝাতে হবে । এভাবে চেষ্টা করলে এসবের আসক্তি কমানো যেতে পারে

Post a comment

Previous Post Next Post